মেয়েদের বীর্য না আসার কারণ কি? মেয়েদের বীর্য বের হয়? এবং কখন বের হয়?

মেয়েদের বীর্য না আসার কারণ কি? মেয়েদের বীর্যপাত হয়? মেয়েদের বীর্য কেমন? কখন বের হয়?

মেয়েদের বীর্যপাত নিয়ে প্রশ্ন উত্তরঃ

সব ছেলেদের মনে একটি কমন প্রশ্ন সেটি হচ্ছে মেয়েদেরও বীর্য বের হয় কিনা?  বা মেয়েদের বীর্য কেমন, বা মেয়েদের বীর্য কখন বের হয়? আজ আমি কথা বলব এই বিষয় নিয়ে যে মেয়েদের বীর্যপাত হয় কিনা। আপনাদের সব প্রশ্নের উত্তর দিব। ছেলেদের সহবাস করার সময় পুর্ন তৃপ্তি পাওয়ার বিষয়টি আসে বীর্যপাত থেকে। এবং এটি কোন মেয়ের সাথে সহবাস করার ফলেই বের হয় না। এটি হস্তমৈথুনের ফলেও বের হয়। আপনাদের প্রশ্ন হচ্ছে ছেলেদের মত মেয়েদেরও বীর্য বের হয়? বা কখন বের হয়? আর কেমন?  তো চলুন আপনাদের প্রশ্নের উত্তর দেই এবার। 

মেয়েদের বীর্য বের হয়? 

না মেয়েদের বীর্যপাত হয়না। একটি মেয়ের যখন যৌন উত্তেজনা বাড়ে তখন তার যোনি থেকে এক প্রকার পিচ্ছিল পদার্থ বের হতে থাকে যাকে কামরস বলে। তবে এটি ছেলেদের বীর্যের মত এতটা ঘন বা এত বেশি বের হয়না।  এটিকেই সাধারনত মেয়েদের বীর্য বলে অনেকে। এটি কোন কোন মেয়েদের ক্ষেত্রে বেশি বা কম হতে পারে। সাধারনত এটি এক প্রকার পিচ্ছিল পদার্থ যেটি যোনিকে পিচ্ছিল করে। 

মেয়েদের বীর্য কখন বের হয়?

মেয়েদের কামরস বা পিচ্ছিল পদার্থ বেড় হওয়ার কোন সময় নেই। তবে একজন মেয়ে যখন পুরোপুরিভাবে উত্তেজিত হবে তখনই তার যোনি থেকে এই কামরস বের হতে থাকবে। 

মেয়েদের বীর্য না আসার কারণ কি?

মেয়েদের আসলে ছেলেদের মত বীর্য নেই এটি তো জানলেনই।  তবে অনেকেই বলেন তার স্ত্রীর যোনিতে কোন পিচ্ছিল পদার্থ আসে না বা কামরস আসেনা যে কারনে সহবাস করাটা কিছুটা কষ্টদায়ক হয়।  এর কারন উপরেও বলা হয়েছে যে একটি মেয়ের কামরস তখনই বের হয় যখন সে পুরোপুরি ভাবে উত্তেজিত হয়।  তাই প্রথমে আপনার স্ত্রীকে উত্তেজিত করতে হবে।  এজন্য আদর করতে হবে যেভাবে আদর করলে তার উত্তেজনা বাড়তে পারে সেসব করতে হবে। 

মেয়েদের বীর্য কেমন?

মেয়েদের বীর্য বলতে কামরস সাধারনত পিচ্ছিল পদার্থ যা দেখতে পানির মতই স্বচ্ছ। 

কিভাবে স্ত্রীকে উত্তেজিত করবেন? 

অনেকেই আছেন যারা কোন প্রকার উত্তেজিত বা আদর না করেই সরাসরি সহবাস করেন।  যে কারনে স্ত্রীকে খুশি করতেও পারেন না। তবে সরাসরি সহবাস না করে আপনি তাকে ঠোকে, গলায়, পেটে চুমু খেতে পারেন এবং তাকে জিজ্ঞেস করতে পারেন সে কি চায় আসলে। একজন মেয়েকে পুরোপুরি উত্তেজিত করে নিলে সহজেই তাকেও তৃপ্তি দেয়া সম্ভব।  তাই এই বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে।

Next Post Previous Post
No Comment
Add Comment
comment url